সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আহমেদ রিয়াজকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছেন কিশোর বাংলা পরিবারের সদস্যরা।

মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তিতে আহমেদ রিয়াজকে সংবর্ধনা

এমএনএ রিপোর্ট : গল্পের জন্য সৃজনশীল শাখায় চতুর্থবারের মতন মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তিতে দেশের বিশিষ্ট শিশু সাহিত্যিক ও কিশোর বাংলার নির্বাহী সম্পাদক আহমেদ রিয়াজকে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কিশোর বাংলা পরিবারের পক্ষ অভিনন্দন ও ফুলেল সংবর্ধনা জানান হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশের বিশিষ্ট শিশু সংগঠক, ডেইলী অবজারভারের পরিচালক ও কিশোর বাংলার সম্পাদক মীর মোশাররেফ হোসেন, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক মোঃ নূরননবী সরকার তুষার, সহযোগী সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, শিল্প সম্পাদক মামুন হোসাইন, সম্পাদনা সহকারী কমল কর্মকার, বিজ্ঞাপন ব্যবস্থাপক মোঃ ফজলুল হক, গ্রাফিকস্ ডিজাইনার মিজানুর রহমান মিঠু, এমএনএর সহ-সম্পাদক তুষার আব্দুল্লাহ প্রমুখ।

সমকালীন শিশুসাহিত্যে উল্লেখযোগ্য নাম আহমেদ রিয়াজ। ছোটদের মনস্তত্ব, চিন্তার জগত ও ভাবনাগুলোকে ধরে ধরে লিখছেন তিনি। তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখি করছেন। সাংবাদিকতায় দেশের শীর্ষ দৈনিকগুলোতে রয়েছে তার দীর্ঘ সময়ের পথচারণা।

গল্প, উপন্যাস, অনুবাদ, ছড়াসহ নানা বিষয়ে তার লেখা প্রশংসা অর্জন করেছে। ছোটদের সাহিত্য নিয়ে এই লেখকের এ যাবৎ প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা ১২০টির বেশি।

কেবল পড়তে শিখেছে, এমন শিশুদের জন্য লিখছেন অভিনব যুক্তবর্ণ বিহীন গল্প। যুক্তবর্ণ বিহীন এই গল্পের বইটি আন্তর্জাতিক প্রকাশনা সংস্থা ‘রুম টু রিডা থেকে প্রকাশিত হয়েছে। দেশের সাহিত্যজগতে যুক্তবর্ণ বিহীন গল্প তিনিই প্রথম লিখেছেন।

আঙ্কেল গ্রেনেড ও তার দল বইয়ের জন্য বাংলাদেশ শিশু অ্যাকাডেমি-অগ্রণী ব্যাংক শিশুসাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন ১৪১৫ সালে। গল্পের জন্য সৃজনশীল শাখায় চারবার পেয়েছেন মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড (২০১১, ২০১৩, ২০১৪ ও ১৯১৮ সালে) ।

এছাড়াও ২০১৪ সালে সাধারণ গদ্যে পেয়েছেন এম নুরুল কাদের শিশুসাহিত্য পুরস্কারসহ আরও বেশকিছু সম্মাননা ও পুরস্কার। ২০১০ সালে সেরা রহস্য ও ২০১৪ সালে পেয়েছেন পরিবেশ বিষয়ক সেরা লেখক হিসেবে ছোটদের মেলা পুরস্কার।

জনপ্রিয় এই শিশু সাহিত্যিক ১৯৭২ সালের ২৯ জানুয়ারি ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পৈত্রিক নিবাস ইলিশের দেশ চাঁদপুরে।

গল্পের জন্য সৃজনশীল শাখায় চতুর্থবারের মতন মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পাওয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে দেশের শিশুসাহিত্য সম্পর্কে মোহাম্মদী নিউজ এজেন্সী (এমএনএ)-কে আহমেদ রিয়াজ বলেন, অনেকেই মনে করেন কিছু একটা লিখলেই শিশুসাহিত্য হয়ে যায়। কিন্তু শিশুসাহিত্য সহজ কাজ নয়। ম্যাক্সিম গোর্কির ভাষায়, সাহিত্য কঠিন কাজ। তারচেয়েও কঠিন শিশুসাহিত্য। আমাদের এখানে নামি সাহিত্যিকরা হুটহাট একটা কিছু লিখে শিশুসাহিত্যের লেবাস লাগিয়ে দেন। লেবাস লাগালেই শিশুসাহিত্য হয় না। এটা তারা যেমন বোঝেন না, তেমনি পাঠকরাও বোঝেন না। ফলে শিশু বয়স থেকেই বই পড়ার প্রতি আগ্রহ নষ্ট হচ্ছে আমাদের শিশুদের’।

বাজার ধরার প্রতিযোগিতায় নেমে সাহিত্যের বারোটা বাজাচ্ছেন সাহিত্যিকরা। সঙ্গে নষ্ট করছেন পাঠক। বইবিমুখ একটা জাতি তৈরি হচ্ছে বলে তিনি মনে করেন।

ছোটদের জন্য লিখতে ছোটদের মনস্তত্ব বোঝাটা খুবই জরুরি বলে মনে করেন তিনি। আহমেদ রিয়াজ বলেন, ‘কোনো একটা লেখা লেখার আগে ঠিক করে নিতে হবে আমি কোন বয়সী শিশুদের জন্য লিখব। শিশুদের মনস্তত্ব দ্রুত পরিবর্তনশীল। তিন বছর বয়সী শিশু আর পাঁচ বছর বয়সী শিশুর চিন্তার জগত, মনের খোরাক এক নয়। আবার ছয় বছর বয়সী শিশুর মনের জগতের সঙ্গে আট বছর বয়সী শিশুর মনের জগতের মিল হয় না। সেজন্য আগে কোন বয়সী শিশুদের জন্য লিখব সেটা ঠিক করে সে হিসেবে বিষয় নির্বাচন করতে হবে। সঙ্গে ভাষাটা হওয়া চাই মুড়মুড়ে। কিংবা কুড়মুড়ে। আমি কী খাওয়াব সেটা আগে থেকেই ঠিক করে নেব-মুড়ি নাকি মুরালি?’

x

Check Also

বিকালে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন মির্জা ফখরুল

এমএনএ রিপোর্ট : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নবঞ্চিতদের বিক্ষোভ ও দেশব্যাপী প্রতীক বরাদ্দের ডামাডোলের ...

Scroll Up