রেকর্ড পঞ্চমবার ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু জিতলেন মেসি

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : লিওনেল মেসির সাফল্যের মুকুটে যোগ হলো আরেকটি পালক। গেল মৌসুমে ইউরোপের লিগগুলোতে খেলা খেলোয়াড়দের মধ্যে সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু জিতলেন তিনি। এ নিয়ে রেকর্ড পঞ্চমবারের মতো এ পুরস্কার শোকেসে ভরলেন ছোট ম্যাজিসিয়ান।

এ পুরস্কার জেতার দৌড়ে মেসির তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন লিভারপুল জাদুকর মোহামেদ সালাহ। তাকে পেছনে ফেলেই সোনার জুতা জেতেন বার্সেলোনা প্রাণভোমরা। পুরস্কার হাতে নিয়ে মেসি বলেন, এতটা আশা তিনি করেননি। বরং তিনি শুধু একজন প্রফেশনাল ফুটবলার হতে চেয়েছিলেন।

২০১৭-১৮ মৌসুমে লা লিগায় ৩৪ গোল করেন মেসি। আর ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ৩২ গোল করেন সালাহ। মিসরীয় কিংয়ের চেয়ে মাত্র ২ গোল এগিয়ে ইউরোপসেরার পুরস্কার জেতেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। এবার তার প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন লিভারপুলের মোহামেদ সালাহ ও টটেনহ্যামের হ্যারি কেইন।

২০০৬ সালের পর এ বছর প্রথমবারের মতো ব্যালন ডি’অরের সেরা তিনে মেসির না থাকা বিস্মিত করেছে অনেকেই। চলতি মৌসুমে এ পর্যন্ত লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতা গত মৌসুমেও ছিলেন দারুণ ছন্দে। বার্সেলোনার কোপা দেল রে ও লা লিগা জয়ে বড় অবদান রাখেন তিনি। ৩৬ ম্যাচে ৩৪ গোল করে লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে পিচিচি ট্রফি ও ইউরোপের লিগগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ গোলের পুরস্কার ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু দুটোই জেতেন ৩১ বছর বয়সী এই তারকা।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে ছাড়িয়ে সর্বোচ্চ পাঁচবার ইউরোপের লিগগুলোয় সবচেয়ে বেশি গোল করার কীর্তি গড়েন মেসি।মেসির ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী জুভেন্টাসের পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো সাবেক ক্লাব রিয়ালের হয়ে গত মৌসুমে ৫২ ম্যাচে ২৬ গোল করেছিলেন।

চারটি গোল্ডেন শুয়ের মালিক রোনালদো একটি জিতেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে, অন্য তিনটি এসেছে রিয়ালের হয়ে। মেসির পাঁচটিই বার্সেলোনার হয়ে জেতা। এতদিন গোল্ডেন শু জয়ের রেকর্ডটা মেসি আর রোনালদো ভাগাভাগি করে নিয়েছিলেন। সেই রেকর্ড এখন থেকে এককভাবে মেসির দখলে চলে গেল।

গতকাল মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু বুঝে পাওয়ার পর নিজের সাফল্য তরুণ বয়সের প্রত্যাশাকে ছাড়িয়ে গেছে বলে জানান মেসি।

এ পুরস্কার জেতার ক্ষেত্রেও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোকে ছাড়িয়ে গেলেন মেসি। সমান চারবার করে এটি জিতে এতদিন যৌথভাবে শীর্ষে ছিলেন তারা। এবার সিআর সেভেনকে ছাড়িয়ে চূড়ায় বসলেন ফুটবলের বরপুত্র।

ফের গোল্ডেন শু জিততে পেরে দারুণ উচ্ছ্বসিত মেসি। ৩১ বছর বয়সী ফুটবলার বলেন, আমি যখন ক্যারিয়ার শুরু করি, তখন এসব জেতার চিন্তা-ভাবনা করিনি। ইতিমধ্যে অনেক কিছু পেয়েছি, অসংখ্য ট্রফি জিতেছি। তবে সত্যিই বলছি, এতটা কল্পনাও করিনি।

পুরস্কার হাতে নিয়ে নিজের সতীর্থ এবং ক্লাবের অবদানের কথা বলতেও ভুললেন এই ‘ফুটবল জাদুকর’। ব্যক্তিগত অর্জনে তাদের ভূমিকাকেই বড় করে দেখছেন তিনি।

‘আমি কাজ এবং প্রচেষ্টা উপভোগ করি। আমি বিশ্বের সেরা দলে আছি এবং বিশ্বের সেরা সতীর্থদের সঙ্গে খেলছি, তাই সবকিছুই সহজ হয়ে গেছে।’

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বার্সা প্রেসিডেন্ট হোসে মারিয়া বার্তোমেউ, মেসির দুই সতীর্থ সার্জিও বুসকেতস এবং সার্জি রবার্তো উপস্থিত ছিলেন।

x

Check Also

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তান

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : চলতি বিশ্বকাপে নিজের চতুর্থ ম্যাচ খেলতে মাঠে নেমেছে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তান। ...

Scroll Up