নৌকার পালে হাওয়া, বিজয় হবেই : শেখ হাসিনা

এমএনএ রিপোর্ট : রংপুরে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়েছেন। তিনি বলেন, সারা দেশে নৌকার পালে হাওয়া লেগেছে, নৌকার বিজয় হবেই।

বাংলাদেশের উন্নয়নযাত্রা অব্যাহত রাখতে এই বিজয় জরুরি মন্তব্য করে তরুণসহ সব বয়সী ও শ্রেণি-পেশার মানুষের ভোট চেয়েছেন তিনি।

আজ রবিবার সকালে ঢাকা থেকে রংপুরে গিয়ে সেখান থেকে দুপুরে নিজের শ্বশুরবাড়ির এলাকা পীরগঞ্জে যান শেখ হাসিনা। প্রথমেই স্বামী প্রয়াত এম ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত করেন।

পরে নির্বাচনী জনসভায় যোগ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “তারুণ্যের কাছে ভোট চাই, মা-বোনদের কাছে ভোট চাই, বয়ঃবৃদ্ধ মুরুব্বি সবার কাছে ভোট চাই।

“আপনারা ভোট দেন, আমরা উন্নয়ন দেব, সমৃদ্ধি দেব, সুন্দর জীবন দেব, উন্নত জীবন দেব। দোয়া করবেন, যেন ভালোভাবে কাজ করতে পারি।”

পীরগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত রংপুর-৬ আসনে আগে নির্বাচন করতেন শেখ হাসিনা। ২০১৪ সালের বিজয়ের পর শেখ হাসিনা এই আসন ছেড়ে দিলে সেখানে নির্বাচিত হয়ে জাতীয় সংসদের স্পিকার হন শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তার সমর্থনে পীরগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে মানুষের উন্নতি হয়, মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়। তার যথেষ্ট উদাহরণ আপনারা দেখেছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা যেন আবার আপনাদের সেবা করতে পারি। আবার যেন আপনাদের জন্য কাজ করতে পারি। আমার একটাই লক্ষ্য। আপনারা ভালো থাকবেন। দু’বেলা পেট ভরে ভাত খাবেন। ছেলেমেয়ে লেখাপড়া শিখবে।

তিনি বলেন, কৃষকরা ১০ টাকায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে। ভর্তুকির টাকা ব্যাংকে চলে যাচ্ছে। কৃষকদের উপকারভোগী কার্ড দিয়েছি। এই কার্ড দিয়ে স্বল্পমূল্যে কৃষি উপকরণ কিনতে পারে। সার-বীজ সব সহজলভ্য করে দিয়েছি। কৃষক যাতে তার উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পান তার ব্যবস্থাও করে দিয়েছি। দেশকে আমরা উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। একটি বাড়ি একটি খামার করে দিয়েছি।

সবার কাছে দোয়া চেয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “আপনাদের কাছে দোয়া চাই, আপনারা দোয়া করবেন, যেন দেশের মানুষের কল্যাণ পারতে পারি। বাংলাদেশ হবে দারিদ্র্যমুক্ত, ক্ষুধামুক্ত সোনার বাংলাদেশ। যে বাংলাদেশ জাতির পিতা শেখ মুজিব চেয়েছিলেন, সেই বাংলাদেশ আমরা করে দেব।

“আমি বিশ্বাস করি, নৌকার পালে হাওয়া লেগেছে, নৌকার বিজয় হবেই।”

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বলেন, “আজকে ধানের শীষ করে বিএনপি-জামায়াত জোট। একাত্তর সালে মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধী, গণহত্যা চালিয়েছে, আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে সেই বিএনপি-জামায়াত মিঠাপুকুর, সাদুল্লাপুর, গোবিন্দগঞ্জ, পলাশবাড়ী পুরো এলাকা বাসে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়েছে, গ্রাম পুড়িয়েছে, রাস্তাঘাট কেটে দিয়েছে, গাছ কেটেছে, আপনারা তাদের কথা একবার চিন্তা করুন।

“যারা মানুষের গায়ে আগুন দিয়ে পোড়ায়, ওরা মানুষ না, ওরা দানব। ওদের স্থান বাংলার মাটিতে হবে না। আজকে যারা ধানের শীষ নিয়ে আসছে, মানুষ পোড়ার গন্ধ তাদের গায়ে। তাদের থেকে সাবধান থাকবেন।

“তাদের নেত্রী খালেদা জিয়া চুরি করে আজকে জেলে আছেন। আর তার ছেলে টাকা পাচার করেছে, ১০ ট্রাক অস্ত্র চোরাচালানে ছিল, ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলায় সাজাপ্রাপ্ত, এতিমের টাকা মেরে খেয়েছে, যারা একাধিক সাজাপ্রাপ্ত- এরা দেশের কী উন্নয়ন করবে? এরা দেশের কী কল্যাণ করবে? কাজেই এদের থেকে দেশবাসীকে সাবধান থাকতে হবে।”

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে দলের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে রবিবার রংপুর পৌঁছান শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী ঢাকা থেকে বিমানে নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দর হয়ে সকাল ১১টার দিকে রংপুরে যান।

x

Check Also

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

এমএনএ রিপোর্ট : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ধর্মীয় উস্কানি ও জাতিগত বিভেদ সৃষ্টির অভিযোগের ...

Scroll Up