যদি তুমি ঘুরে দাঁড়াও, তবে তুমিই বাংলাদেশ : কামাল হোসেন

এমএনএ রিপোর্ট : জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন তরুণদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘যদি তুমি ভয় পাও তবেই তুমি শেষ, যদি তুমি ঘুরে দাঁড়াও, তবে তুমিই বাংলাদেশ।’

ড. কামাল হোসেন ভোটারদের উদ্দেশে বলেছেন, আগামীকাল সকাল সকাল ভোট দিতে যান। আপনার ভোট খুবই মূল্যবান। কারণ আপনি দেশের মালিক। দৃর্বৃত্তদের ভয় পাবেন না, জনগণের শক্তির সঙ্গে তারা পারবে না।

আজ শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ শনিবার বলেছেন, ‘ঐক্যফ্রন্ট বা বিএনপি; ওদের একটা চরিত্র আছে এ রকম- হয়তো নির্বাচন চলাকালীন মাঝপথে হঠাৎ বলবে; ইলেকশন করব না। আমরা প্রত্যাহার করে নিলাম।’ প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্যের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘আমরা নির্বাচনে আছি, থাকবো।’

তরুণ ভোটারদের উদ্দেশে ড. কামাল বলেন, তোমরা যারা প্রথমবার ভোট দেয়ার সুযোগ পেয়েছ, তারা সময়মতো ভোট দিতে যাবে। মনে রাখবে, ‘যদি তুমি ভয় পাও তবে তুমি শেষ, যদি তুমি ঘুরে দাঁড়াও, তবে তুমি বাংলাদেশ।’

ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে কোনো বিভেদ আছে কী না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টে কোনো বিভেদ ও দ্বিধা নেই। ঐক্য আরাও সুদৃঢ় হয়েছে।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার ৪৭ পর এমন পরিস্থিতি খুবই লজ্জাকর।

তিনি বলেন, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসার, ভিডিপি, কোস্টগার্ডসহ আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে জড়িতদের প্রতি অনুরোধ, আপনারা অতীতের মতো গৌরবময় ভূমিকা পালন করুন। বিশ্বব্যাপী শান্তিরক্ষায় আপনাদের ভূমিকা প্রশংসিত হচ্ছে। সে প্রশংসার ফলে সারা বিশ্বে আপনাদের সুযোগ বেড়েছে। কোনও অবস্থাতেই তা যাতে ব্যাহত না হয়, সে ব্যাপারে আপনারা সতর্ক থাকবেন।

দেশের সব কেন্দ্রের প্রিসাইডিং এবং পোলিং অফিসারসহ ভোটগ্রহণের দায়িত্বে যারা আছেন তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনার ওপর যে দায়িত্ব তা সততার সঙ্গে পালন করবেন। এটা করলে আপনাদের সম্মান বাড়বে। ভোটারের মুখের হাসির ওপরই নির্ভর করছে আপনার দায়িত্ব পালনে সফলতা ও তৃপ্তি।

নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল হোসেন বলেন, আমাদের প্রত্যাশা, আমরা অবশ্যই আশা করি, আমরা জিতব, সবাই এখন পরিবর্তন পরিবর্তন করে চিৎকার করছে। নির্বাচনে আমরাই জিতব যদি কোনও দুই নম্বরি না হয়।

পার্টির অফিস ডিআরইউতে রেখে কেন সংবাদ সম্মেলন করলেন, আপনাদের (ঐক্যফ্রন্ট) মধ্যে ঐক্যের ঘাটতি আছে কিনা- এই প্রশ্নের উত্তরে ড. কামাল হোসেন বলেন, এই হল নেয়াটা কোনোভাবে প্রমাণ করে না যে, আমাদের মধ্যে ঐক্য নেই। কোথাও বড় হল না পেয়ে এখানে এসেছি। আমাদের মধ্যে ঐক্য আরও সুসংহত হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল উপস্থিত ছিলেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, গত ৮ নভেম্বর ইশতেহার ঘোষণার পর থেকে সারাদেশে ১১,৫০৬ জন গ্রেফতার, ৯৫৭টি মামলা, মিছিল ও অফিসে ২,৮৯৬ বার হামলা, ১৩,২৫২ জন আহত, ৯ জন নিহত হয়েছেন। গত শুক্রবার গ্রেফতার হয়েছেন ১১২৭ জন। ১১ জন প্রার্থী কারাগারে ও ১৬টি আসনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে সরকার যেমন জোর-জবরদস্তি করেছে, সংসদ নির্বাচনেও তেমটি করতে চাচ্ছে। আমরা আশ্বস্ত হতে চায় সুষ্ঠু ভোট হবে, আমাদের পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া হবে না। বিএনপির কোথাও পোলিং এজেন্ট সংকট নেই। মাটি কামড়ে তারা কেন্দ্রে থাকবে।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘কেউ ভোট কেন্দ্র দখল করতে চাইলে তাদের প্রতিহত করতে হবে।’

x

Check Also

আজ বৃহস্পতিবারের দিনটি আপনার কেমন যাবে?

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : আজ ১৫ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। নতুন সূর্যালোকে আজ ...

Scroll Up