পৃথিবীর চেয়ে ২৩ গুণ বড় গ্রহের সন্ধান লাভ

এমএনএ সাইটেক ডেস্ক : পৃথিবীর চেয়ে ২৩ গুণ বড় গ্রহের সন্ধান পেয়েছে নাসা। আমাদের সৌরব্যবস্থার বাইরে তিনটি নতুন গ্রহ ও ছয়টি সুপারনোভা পর্যবেক্ষণ করেছে সংস্থাটি। নাসার গ্রহ অনুসন্ধানী টেস মিশনের প্রথম তিন মাসের মধ্যেই এ গ্রহ ও সুপারনোভার সন্ধান পাওয়া গেছে।

গ্রহটির সন্ধান মিলেছে মহাকাশে। আমাদের পৃথিবী থেকে প্রায় ৫৩ আলোকবর্ষ দূরে। গ্রহটিকে প্রথমে বিজ্ঞানীরা একটি ভাসমান মুক্ত গ্রহ বলেই মনে করেছিলেন। এ সময় বিশাল একটি ‘ব্যর্থ তারকা’ বলেও একে চিহ্নিত করা হয়। তবে পরে আরো অনুসন্ধানে এর সঙ্গে সংযুক্ত তারকারও সন্ধান মেলে। শেষ পর্যন্ত বিশাল গ্রহ এবং অতি বিস্তৃত একটি সৌরজগতের সন্ধান পেয়ে যান জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। বর্তমানে সৌরজগতগুলোর মধ্যে এটিকেই সবচেয়ে বড় বলে মনে করছেন তারা।

গত জুলাই থেকে আকাশে জরিপ শুরু করেছে নাসা। এমআইটির পরিচালনায় ট্রানসিটিং এক্সোপ্লানেট জরিপ উপগ্রহ একটি সুপার-পৃথিবী পি মেনসাই শনাক্ত করেছে। প্রতি ছয় দিনে এটি তার তারকার চারপাশে ভ্রমণ করে।

আর এলএইচএস ৩৮৪৪বি নামে একটি পাহাড়ি গ্রহ মাত্র ১১ ঘণ্টা প্রদক্ষিণ করে। এক্সোপ্লানেটের সর্বশেষ আবিষ্কারের নাম এইচডি ২১৭৪৯বি। দীর্ঘ ৩৬ ঘণ্টা প্রদক্ষিণ করে এ গ্রহটি।

৫৩ আলোকবর্ষ দূরে রেটিকুলাম নক্ষত্রপুঞ্জে একটি ছোট্ট উজ্জ্বল তারকা প্রদক্ষিণ করে এটি। এ গ্রহটির উপরিভাগের তাপমাত্রা হবে অন্তত ১৬৫০ সেলসিয়াস। নিকটবর্তী তারকাগুলোর চেয়ে এটি কিছুটা শীতল।

অনুসন্ধানী দলের নেতৃত্ব দিয়েছেন এমআইটির কাভলো ইনস্টিটিউট ফর অ্যাস্ট্রোফিজিক্স অ্যান্ড স্পেস রিসার্চের ডিয়ানা ড্রাগোমির। তিনি বলেন, এইচডি ২১৭৮৯বি হচ্ছে- নিকটবর্তীগুলোর মধ্যে সবচেয়ে শীতলতম। ছোট্ট গ্রহপুঞ্জকে খুঁজে বের করা খুবই কঠিন। যেগুলো তাদের তারকাদের থেকে বহুদূরে প্রদক্ষিণ করে।

নতুন এ গ্রহ পৃথিবী থেকে ২৩ গুণ বড়। কাজেই এটি পাথুরে হওয়ার চেয়ে গ্যাসে পূর্ণ হওয়ারই কথা। নেপচুন ও ইউরেনাসের চেয়েও ঘন বায়ুমণ্ডল আছে নতুন এ গ্রহে।

সিয়াটলে মার্কিন জ্যোতির্বিদ্যা সমিতির বার্ষিক সভায় এ আবিষ্কারের কথা প্রকাশ করা হয়েছে।

x

Check Also

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তান

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : চলতি বিশ্বকাপে নিজের চতুর্থ ম্যাচ খেলতে মাঠে নেমেছে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তান। ...

Scroll Up