একুশে পদক পেলেন ২১ বিশিষ্ট নাগরিক

এমএনএ রিপোর্ট : জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য দেশের ২১ জন বিশিষ্ট নাগরিককে একুশে পদক-২০১৯ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

আজ বুধবার বিকেলে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানানো হয়।

আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করবে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

ভাষা আন্দোলন, শিল্পকলা, গবেষণা, ভাষা ও সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য ২১ জনকে এই পদক দেওয়া হচ্ছে। তাদের মধ্যে দুজনকে দেওয়া হবে মরণোত্তর পদক।

এ বছর একুশে পদকের জন্য মনোনীত বিশিষ্ট ব্যক্তিরা হলেন- অধ্যাপক হালিমা খাতুন (ভাষা আন্দোলন- মরণোত্তর), অধ্যাপক গোলাম আরিফ টিপু (ভাষা আন্দোলন), অধ্যাপক মনোয়ারা ইসলাম (ভাষা আন্দোলন), সুবীর নন্দী (শিল্পকলা- সঙ্গীত), প্রয়াত আজম খান (শিল্পকলা- সঙ্গীত- মরণোত্তর), খায়রুল আনাম শাকিল (শিল্পকলা -সঙ্গীত), লাকী ইনাম (শিল্পকলা- অভিনয়), সুবর্ণা মুস্তাফা (শিল্পকলা- অভিনয়), লিয়াকত আলী খান (শিল্পকলা- অভিনয়), সাইদা খানম (শিল্পকলা- আলোকচিত্র), জামালা উদ্দিন আহমেদ (শিল্পকলা- চারুকলা), ক্ষিতীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য (মুক্তিযুদ্ধ), ডক্টর বিশ্বজিৎ ঘোষ (গবেষণা), ড. মাহবুবুল হক (গবেষণা), ড. প্রণব কুমার বড়ুয়া (শিক্ষা), রিজিয়া রহমান (ভাষা ও সাহিত্য), ইমদাদুল হক মিলন ( ভাষা ও সাহিত্য), অসীম সাহা ( ভাষা ও সাহিত্য), আনোয়ারা সৈয়দ হক (ভাষা ও সাহিত্য), মইনুল আহসান সাবের (ভাষা ও সাহিত্য) ও হরিশংকর জলদাস (ভাষা ও সাহিত্য)।

পদক প্রাপ্ত প্রত্যেককে ৩৫ গ্রাম ওজনের একটি স্বর্ণপদক, এককালীন দুই লাখ টাকা ও একটি সম্মাননা পত্র দেওয়া হবে।

ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণে সরকার ১৯৭৬ সাল থেকে প্রতি বছর বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে এই পুরস্কার দিয়ে আসছে।

x

Check Also

চীনা ডেমু ট্রেন নতুন করে আর নয় : শেখ হাসিনা

এমএনএ রিপোর্ট : দেশের ডিজেল ইলেকট্রিক মাল্টিপল ইউনিট (ডিইএমইউ) ট্রেন চালুর ছয় বছর পর চলাচল ...

Scroll Up