ভালোবাসা দিবসে নিলামে উঠেছে ‘উল্কা হৃদয়’

এমএনএ রিপোর্ট : আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি। দরজায় কড়া নেড়ে জানান দিয়েছে ভালোবাসা দিবস। এ বিশেষ দিনটি উদযাপনে বেশকিছু দিন থেকে চলছে প্রিয় মানুষের জন্য উপহার কেনার ধুম। ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে যুক্তরাজ্যের নিলামকারী প্রতিষ্ঠান ক্রিস্টি রেখেছে এবার এক বিশেষ আয়োজন। হৃদয় আকৃতির একটি উল্কাপিণ্ড নিলামে তুলেছে প্রতিষ্ঠানটি। ৭২ বছর আগে পৃথিবীতে আছড়ে পড়েছিল উল্কাপিণ্ডটি।

‘মহাকাশের হৃদয়’ নামে পরিচিত এই উল্কাপিণ্ডের দাম ৩ থেকে ৫ লাখ মার্কিন ডলার উঠতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পিণ্ডটির আকার ও নামের কারণেই কেউ কেউ ক্রিস্টির এবারের নিলামের আয়োজনকে বলছেন ‘মহাকাশের হৃদয়’ কেনার সুযোগ।

ক্রিস্টি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের নিলাম শুরু হয়েছে ৬ ফেব্রুয়ারি। চলবে আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। মহাকাশের হৃদয়সহ এই নিলামে বিক্রি হবে মোট ৪৫টি উল্কাপিণ্ড।

হৃদয় আকৃতির উল্কাপিণ্ডটি সাড়ে চার শ কোটি বছরের পুরোনো বলে দাবি গবেষকদের। ১৯৪৭ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার সাইবেরিয়া অঞ্চলে উল্কাবৃষ্টির সময় প্রকাণ্ড এক আগুনের গোলার পিণ্ড আকারে ভূপৃষ্ঠে আছড়ে পড়েছিল এটি। পৃথিবীর কয়েক হাজার বছরের ইতিহাসে এত বড় উল্কাবৃষ্টি এর আগে হয়নি বলেই মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। উল্কাখণ্ডগুলো ঘণ্টায় ৩০ হাজার মাইলের বেশি বেগে বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করেছিল। সাইবেরিয়ার যে এলাকায় উল্কাবৃষ্টি হয়েছিল, সেখানকার কারখানার চিমনি, বাড়িঘরের জানালা ভেঙে চুরমার হয়ে গিয়েছিল। উপড়ে গিয়েছিল প্রায় সব গাছপালা।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, বড় একটি উল্কা ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে ওই উল্কাবৃষ্টি হয়েছিল। ক্রিস্টির বিজ্ঞান ও প্রাকৃতিক ইতিহাস বিশেষজ্ঞ জেমস হিসলপ বলেন, সৌরজগতে মঙ্গল ও বৃহস্পতির মধ্যের এলাকায় সূর্যকে প্রদক্ষিণকারী যে গ্রহাণুপুঞ্জের স্তর, সেখান থেকে ৩২ কোটি বছর আগে বিচ্ছিন্ন হয়েছিল ওই বড় উল্কা। পৃথিবীতে প্রথম ডাইনোসরের আবির্ভাবের ৭ কোটি বছর আগের ঘটনা এটি।

ভ্যালেন্টাইন্স ডে উপলক্ষে আয়োজিত ক্রিস্টির অনলাইন নিলামটিতে অংশগ্রহণের শেষ সুযোগ থাকছে আজ। এটি হতে পারে একটি মহান ভ্যালেন্টাইন্স ডে’র বিশেষ উপহার। নিলামে অংশ নিয়ে যে কেউ এটি কিনতে পারবেন। এজন্য অবশ্য তাকে গুনতে হবে বড় অঙ্কের টাকা। ভ্যালেন্টাইন্স ডে’তে সারাবিশ্বের ধনবান প্রেমিকদের কাছে ভালোবাসা বহিঃপ্রকাশের জন্য এটি হতে পারে একটি অবিস্মরণীয় ঘটনা।

ভ্যালেন্টাইন্স ডে ব্যাপকভাবে বাংলাদেশে উদযাপিত হয় এবং আমাদের দেশেও বেশ কিছু ধনবান মানুষ রয়েছেন। যারা তাদের স্ত্রীকে গভীরভাবে ভালোবাসেন। এরমধ্যে অন্যতম হলেন প্রিন্স মুসা বিন শমসের। তিনি তার স্ত্রীকে এতোটাই ভালবাসেন যে সে সবসময় তার হাতে খাবার খেয়ে থাকেন। এমনতর ভালেবাসার খবর মিডিয়ার কল্যাণে ইতিমধ্যে সারা বিশ্বের মানুষ অবগত হয়েছেন।

প্রাচুর্যের যুবরাজ খ্যাত প্রিন্স মুসা বিন শমসের কিংবা বাংলাদেশের অন্য কোন ধনী প্রেমিক তার ‘হার্ট অফ স্পেস’ এর জন্য এই নিলামটিতে অংশ নিতেও পারেন।

বাংলাদেশের মাটিতে যদি ‘হার্ট অফ স্পেস’ পৌঁছতে পারত, তবে এটি সব প্রেমিকদের জন্য একটি দুর্দান্ত উপহার হতে পারে। হার্ট অফ স্পেস’ টি দেশের জন্য এবং যারা প্রাচীনত্বের আগ্রহ রাখে তাদের জন্য কাঙ্খিত একটি চমৎকার উপহার।

আমরা আশা করি বাংলাদেশের ধনী প্রেমিকরা তাদের জীবনের ভালোবাসার জন্য ‘হার্ট অফ স্পেস’ এর এ নিলামটিতে অংশ নেবেন।

x

Check Also

চীনা ডেমু ট্রেন নতুন করে আর নয় : শেখ হাসিনা

এমএনএ রিপোর্ট : দেশের ডিজেল ইলেকট্রিক মাল্টিপল ইউনিট (ডিইএমইউ) ট্রেন চালুর ছয় বছর পর চলাচল ...

Scroll Up