দুর্নীতিগ্রস্ত নেতানিয়াহুই ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : দুর্নীতির তিন মামলার আসামি ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু রেকর্ড পঞ্চমবারের মতো দেশটির জাতীয় নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবারের ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বী বেনি গ্যান্তেজের সঙ্গে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হলেও নির্বাচনে নেতানিয়াহু জয়ী হয়েছেন বলে দেশটির প্রধান তিনটি টেলিভিশন চ্যানেল দাবি করেছে।

ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স বলছে, ইসরায়েলের এবারের নির্বাচনে ৯৭ শতাংশ ভোট পড়েছে। কিন্তু ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য কোনো দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। কিন্তু অন্যান্য ডানপন্থী রাজনৈতিক দলগুলোকে সঙ্গে নিয়ে জোট সরকার গঠনে নেতানিয়াহুই শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছেন। দেশটির বিরোধী বেশ কয়েকটি কট্টর ডানপন্থী রাজনৈতিক দল নেতানিয়াহুকে সমর্থন দিয়ে আসছে।

ইসরায়েলি এই প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির তিনটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। যদিও তিনি এসব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন। পার্লামেন্ট নেসেটের ওয়েবসাইট ও ইসরায়েলি টেলিভিশন চ্যানেল বলছে, নির্বাচনে ডানপন্থী লিকুদ পার্টির প্রবীণ নেতা নেতানিয়াহু ও নতুন মধ্যপন্থী ব্লু অ্যান্ড হোয়াইট পার্টির গ্যান্তেজ ৩৫টি করে আসনে জয় পেয়েছেন।

লিকুদ পার্টির প্রধান কার্যালয়ে মঙ্গলবার গভীর রাতে উল্লাসরত দলীয় কর্মী-সমর্থকদের মাঝে বক্তৃতা দেন নেতানিয়াহু। এ সময় ৬৯ বছর বয়সী এই নেতা বলেন, এটা বিশাল বিজয়ের একটি রাত। তবে সরকারি ফল জানার জন্য নেতাকর্মীদের অপেক্ষা করার আহ্বান জানান তিনি।

নেতানিয়াহু গভীর রাতে যখন বক্তৃতা করছিলেন, তখন পাশেই ছিলেন তার স্ত্রী। তিনি স্বামীর ব্যাপক প্রশংসা এবং জড়িয়ে চুম্বনও করেন। ইসরায়েলের ফার্স্ট লেডি সারা বলেন, তিনি (নেতানিয়াহু) একজন জাদুকর।

ইসরায়েলের এই নির্বাচনের চূড়ান্ত ফল ঘোষণা করা হবে আগামী শুক্রবার। যদিও বুথ ফেরত জরিপগুলো থেকে ধারণা করা হচ্ছে, ১২০ আসনের নেসেটের ৬৫টি আসনে নেতানিয়াহু নেতৃত্বাধীন দেশটির ডানপন্থী দল লিকুদ পার্টি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে। অন্যদিকে, মধ্য-বামপন্থী দলগুলো পাবে মোট ৫৫ আসন।

চূড়ান্ত ফলে নেতানিয়াহু যদি জয় পান, তাহলে ইসরায়েলের ৭১ বছরের ইতিহাসে তিনিই হবে সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদে ক্ষমতায় থাকা একমাত্র প্রধানমন্ত্রী। নেতানিয়াহু বলেছেন, তিনি জোট সরকার গঠনের জন্য ইতোমধ্যে মিত্রদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছেন।

১৯৯০ সালে প্রথমবারের মতো ইসরায়েলের ক্ষমতায় আসেন নেতানিয়াহু। বিভিন্ন সময়ে তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার বাঁচানোর লড়াই করেছেন তিনি। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির তিনটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে; যদিও তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

এদিকে, দেশটির গোয়েন্দা বাহিনীর সাবেক প্রধান ৫৯ বছর বয়সী জেনারেল গ্যান্তেজ মঙ্গলবারের নির্বাচনে জয় পেয়েছেন বলে বুথ ফেরতের জরিপের ফলের বরাত দিয়ে দাবি করেছেন। তিনি বলেছেন, তার দল ব্লু অ্যান্ড হোয়াইট পার্টি প্রতিদ্বন্দ্বী লিকুট পার্টির চেয়ে এগিয়ে রয়েছে।

নির্বাচনে প্রথমবারের মতো অংশ নেয়া দেশটির সাবেক এই গোয়েন্দা প্রধান গতকাল মঙ্গলবার রাতে বলেন, আমরাই জয়ী। দেশের মানুষের সেবা করার জন্য আমরা বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।

এ দুই নেতা মঙ্গলবার রাতে নিজেদের জয়ী বলে দাবি করলেও ভোটের পরিষ্কার চিত্র আসতে শুরু করে বুধবার সকালে। এতে নেতানিয়াহুকেই বিজয়ী হিসেবে দেখানো হয়।

x

Check Also

ভোজন রসিকদের পছন্দ ইলিশ খিচুড়ি

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : ইলিশ খিচুড়ি কার না পছন্দ। বিশেষ করে ভোজন রসিকদের কাছে পছন্দের ...

Scroll Up