Don't Miss
Home / হোম স্লাইডার / রাতে ৯ ঘন্টা ঘুমানোর পারিশ্রমিক লাখ টাকা
ঘুমিয়ে

রাতে ৯ ঘন্টা ঘুমানোর পারিশ্রমিক লাখ টাকা

এমএনএ জীবনচর্চা ডেস্কঃ ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে লাখপতি হওয়ার স্বপ্ন কে না দেখেন? কিন্তু এই স্বপ্ন সত্যি হবার নয়। বিনা শ্রমে পৃথিবীতে কিছু মেলে কি? এ বার সময় এসেছে স্বপ্ন সত্যি করার! অবাক লাগছে বুঝি? বিষয়টি একটু খুলেই বলা যাক। রাতে ঘুম হয় না, অভ্যাস চলে গিয়েছে? রাতে কিছুতেই ঘুমোতে পারেন না? মানুষকে ঘুমের এমন নানা সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে উদ্যোগী হয়েছে ‘ওয়েকফিট’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান। তাদের দেওয়া শর্ত অনুযায়ী, প্রতিদিন ৯ ঘণ্টা ঘুমালেই পেয়ে যাবেন ১ লাখ টাকা পারিশ্রমিক।

সম্প্রতি ‘ইনসমনিয়া’ ভুগছেন এমন বহু মানুষকে এই সমস্যা থেকে রেহাই দিতেই এই বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ‘ওয়েকফিট’ নামের প্রতিষ্ঠানটি সম্প্রতি শুরু করেছে একটি ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রাম।
প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কাজটি ১০০ দিনের আর এর জন্য ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপনও দেওয়া হয়েছে। বিজ্ঞাপনে ওই সংস্থা লিখেছে, ‘আপনি কি রাতে আপনার প্রিয় শোগুলো না দেখে তার পরিবর্তে ৯ ঘণ্টা ঘুমাতে পারবেন? যদি তাই হয়, তাহলে আপনিই হতে পারেন যোগ্য প্রার্থী, আমরা যার খোঁজ করছি।’ এই প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে ‘ওয়েকফিট স্লিপ ইন্টার্নশিপ’।

এর ‘জব ডেসক্রিপশন’-এ বলা হয়েছে, ‘শুধু ঘুম!’ তবে এর সঙ্গেই জুড়ে দেওয়া হয়েছে কিছু শর্ত। আসুন সেগুলো দেখে নেওয়া যাক…

১) এমন প্রার্থী কাম্য যিনি শোওয়ার ১০-২০ মিনিটের মধ্যেই ঘুমিয়ে পড়তে পারেন। যার যখন-তখন সামান্য সুযোগ পেলেই ঘুমিয়ে পড়ার ক্ষমতা রয়েছে।

২) দ্বিতীয়ত, বেশি রাত পর্যন্ত জেগে না থাকা এর অন্যতম শর্ত। এর সঙ্গেই নিজের ফোনে আসা একের পর এক নোটিফিকেশনকেও অগ্রাহ্য করতে পারবে যে। সব কিছু দূরে রেখে শুধুই আরামের ঘুম। এটুকুই ‘কাজ’।

৩) সব শেষে বলা আছে, ইন্টার্নদের ঘুমাতে হবে ওয়েকফিটের দেওয়া ম্যাট্রেসে। স্লিপ ট্র্যাকারের মাধ্যেমে তাদের ঘুমের নানা দিক লক্ষ্য রাখা হবে। সেই অনুযায়ী ভাল ঘুমানোর পরামর্শ দিতে কাউন্সেলিং সেশনও থাকবে। তাহলে আর বেশি দেরি না করে ঝটপট আবেদন করেই ফেলুন আর পেয়ে যান মোটা টাকার পারিশ্রমিক।

x

Check Also

কেন্দ্রীয় ব্যাংক

কেন্দ্রীয় ব্যাংক ভোক্তা ঋণে প্রভিশন কমালো

এমএনএ শিল্প ও বাণিজ্য ডেস্কঃ ভোক্তা ঋণের বিপরীতে সাধারণ নিরাপত্তা সঞ্চিতি বা ‘প্রভিশন’ সংরক্ষণের হার ...

Scroll Up
%d bloggers like this: