Don't Miss
Home / আজকের সংবাদ / অর্থনীতি / বাজেট ঘাটতি অর্থায়নে ছয় মাসে নীট ঋণ ৫২ হাজার কোটি টাকা
অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক উৎস থেকে মো

বাজেট ঘাটতি অর্থায়নে ছয় মাসে নীট ঋণ ৫২ হাজার কোটি টাকা

এমএনএ অর্থনীতি ডেস্ক : বাজেট ঘাটতি অর্থায়নে চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক উৎস থেকে মোট ৫১ হাজার ৯৭৯ কোটি টাকা নীট ঋণ নিয়েছে সরকার। এটি ঘাটতি অর্থায়ন লক্ষ্যমাত্রার ২৪ দশমিক ২১ শতাংশ। প্রসঙ্গত: চলতি অর্থবছরে সার্বিক বাজেট ঘাটতি ধরা হয়েছে ২ লাখ ১৪ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা। এটি জিডিপি’র ৬ দশমিক ২ শতাংশ।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে বাজেট ঘাটতির হার দাঁড়িয়েছে ২ শতাংশ। উল্লেখ্য, এবারের মূল বাজেটের আকার হচ্ছে ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা। এর বিপরীতে ছয় মাসে মোট ব্যয় হয়েছে ১ লাখ ৪৯ হাজার ৮১৬ কোটি টাকা। এটি মূল বাজেটের ২৪ দশমিক ৮২ শতাংশ। অর্থ বিভাগ-এর হিসাব মতে, বাজেট ঘাটতি মেটাতে অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে নীট ৩৪ হাজার ৭১৩ কোটি টাকা ঋণ নেয়া হয়েছে (প্রথম প্রান্তিকে ১৪,৪৮৩ কোটি টাকা ও দ্বিতীয় প্রান্তিকে ২০,২৩১ কোটি টাকা)। এটি বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রার ৪৫ দশমিক ৪ শতাংশ। বাজেটে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকারের ঋণ গ্রহণের লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ৭৬ হাজার ৪৫২ কোটি টাকা। গত ২০২০-২১ অর্থবছরের একই সময়ে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে ১৯ হাজার ৯২৩ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিল সরকার (বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রার ২৩%)। সে হিসাবে গত অর্থবছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরে প্রথম ছয় মাসে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকারের ঋণ গ্রহণ বেড়েছে।

এদিকে চলতি অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র খাত থেকে ঋণ গ্রহণের লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ৩২ হাজার কোটি টাকা। এর বিপরীতে অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে নীট ঋণ নেয়া হয়েছে ১৪ হাজার ৭০৪ কোটি টাকা (প্রথম প্রান্তিকে ৯,৯১৩ কোটি টাকা ও দ্বিতীয় প্রান্তিকে ৪,৭৯০ কোটি টাকা)। এটি বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রার প্রায় ৪৬ শতাংশ। গত ২০২০-২১ অর্থবছরের একই সময়ে সঞ্চয়পত্র খাত থেকে ঋণ গ্রহণের পরিমাণ ছিল ২০ হাজার ৯৯৫ কোটি টাকা। সে হিসাবে গত অর্থবছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে সঞ্চয়পত্র খাত থেকে সরকারের ঋণ গ্রহণ কমেছে। তবে এ বছর সঞ্চয়পত্র খাত থেকে ঋণ গ্রহণ কমলেও গত অর্থবছরের সেটি ছিল লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় বেশি।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, বাজেট ঘাটতি অর্থায়নে চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে বৈদেশিক উৎস থেকে মোট ৮ হাজার ২৫৬ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছে সরকার। অন্যদিকে একই সময়ে মোট বৈদেশিক ঋণ পরিশোধ করেছে ৫ হাজার ৬৯৪ কোটি টাকা। সে হিসাবে ছয় মাসে সরকারের নীট বৈদেশিক ঋণ দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৫৬২ কোটি টাকা। এটি বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রার মাত্র ২ শতাংশ। চলতি বাজেটে নীট বৈদেশিক ঋণ গ্রহণের লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ৯৭ হাজার ৭৩৮ কোটি টাকা। গত ২০২০-২১ অর্থবছরের একই সময়ে নীট বৈদেশিক ঋণ গ্রহণের পরিমাণ ছিল ৬ হাজার ৭৯৫ কোটি টাকা। সে হিসাবে গত অর্থবছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে বৈদেশিক উৎস থেকে সরকারের ঋণ গ্রহণ কমেছে।

x

Check Also

তেল

রাশিয়া বাংলাদেশের কাছে তেল বিক্রি করতে চায়

এমএনএ শিল্প ও বাণিজ্য ডেস্কঃ বাংলাদেশের কাছে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল বিক্রির প্রস্তাব দিয়েছে রাশিয়া। আর, ...

Scroll Up